NewsSBangla
NewsSBangla
Wednesday, 16 Sep 2020 00:00 am
NewsSBangla

NewsSBangla

মঙ্গলবারই দলের সিদ্ধান্ত অনুসারে জেলা তৃণমূলের সভাপতি অজিত মাইতি চন্দ্রকোনা ২ নম্বর ব্লকের সভাপতি হিসেবে জগজিৎ সরকারের নাম ঘোষনা করেছিলেন ৷ বিধায়ক ছায়া দোলইকে ব্লকের দায়ীত্ব থেকে সরিয়ে তাঁরই অনুগামীকে ব্লক সভাপতি করেছিলেন ৷তা শোনার পরেই ক্ষোভে ফেটে পড়ে চন্দ্রকোনার দাপুটে তৃণমূল নেতা রামকৃষ্ণ রায়, সঞ্জীত মিদ্যার অনুগামীরা।তাদের দাবি, জগজিৎ সরকারের মতো অযোগ্য, দুর্নীতি পরায়ন নেতা কে ব্লক সভাপতির মতো গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। এরপরেই নিজেদের পদ থেকে পদত্যাগের সিদ্ধান্ত নেয় রামকৃষ্ণ দাসের অনুগামী নামে পরিচিত এলাকার বেশ কয়েকজন তৃণমূল নেতা।বুধবার বিক্ষুব্ধদের সাথে আলোচনার জন্য আজ চন্দ্রকোনা পার্টি অফিসে পৌঁছায় টিম পিকের দুই সদস্য । তৃণমূল বিক্ষুব্ধ গোষ্ঠীর হাতে তাদেরকে হেনস্থা হতে হয়।ধাক্কাধাক্কি করে তাদের বের করে দেয়া হয় দলীয় কার্যালয় থেকে। ক্ষোভে ফেটে পড়ে বিক্ষুব্ধ তৃণমূল কর্মীরা। তুমুল উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে চন্দ্রকোনা ব্লক তৃণমূল পার্টি অফিস সংলগ্ন এলাকাতেও। বিক্ষোভের মাঝে ইতিমধ্যেই চন্দ্রকোনা ২নম্বর ব্লকের ৫জন অঞ্চল সভাপতি সহ শ্রমিক সংগঠনের এক নেতা পদত্যাগ করেছেন বলে জানিয়েছেন বিক্ষুব্ধরা। এমনকি তাঁদের ইস্তফাপত্র জেলা তৃণমূল সভাপতি অজিত মাইতির কাছে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে বলেও জানিয়েছেন বিক্ষুব্ধরা। বিক্ষুব্ধ তৃণমূল নেতারা প্রকাশ্যে ইস্তফা দেওয়ার কথা ঘোষনা করে মুখ খুললেও কোনো প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায় নি জেলা তৃণমূল নেতৃত্বের তরফ থেকে। গোটা ঘটনায় চরম অস্বস্তিতে তৃণমূল শিবির।