জাতীয় তদন্ত সংস্থাকে(এনআইএ) সহযোগিতা করতে ছত্রধর মাহাতো কে নির্দেশ হাইকোর্টের।

Webdesk: তদন্তের বিরোধিতা করে হাইকোর্টে আবেদন জানিয়েছিলেন ছত্রধর মাহাত ৷ ওই মামলায় বুধবার নতুন করে NIA-কে নোটিশ পাঠাতে বলল হাইকোর্ট।আর তদন্তের সবরকমের সহযোগিতার জন্য ছত্রধরকে নির্দেশ দিল ৷


বিচারপতি দেবাংশু বসাকের সিঙ্গল বেঞ্চে NIA-(National Investigation Agency)-র তরফে আইনজীবী সঞ্জয় বর্ধন জানান, "তদন্তের জন্য ছত্রধর মাহাতোর সহযোগিতা পাচ্ছেন না তারা"। National Investigation Agency act.160 ধারায় তাঁকে হাজিরার নোটিশ পাঠালেও তিনি দেখা করেননি । ইতিমধ্যে তদন্তকারী সংস্থা তাঁর সঙ্গে দেখা করতে লালগড়ে গিয়েছিল৷ তিনি দেখা করেননি ।"
অন্যদিকে, মামলাকারী ছত্রধর মাহাতর তরফে আইনজীবী দেবাশিস রায় বলেন, "2009 সালে লালগড় থানায় আমার মক্কেলের বিরুদ্ধে যে দুটি অভিযোগ দায়ের হয়েছিল। তার একটিতে ইতিমধ্যেই কলকাতা হাইকোর্ট মুক্তি দিয়েছে তাঁকে । আর একটি মামলা সংশ্লিষ্ট নিম্ন আদালতে বিচারাধীন রয়েছে। সেই মামলায় খুব শীঘ্রই চার্জশিট পেশ করা হবে। তাঁর বিরুদ্ধে 2008 সালের National Investigation Agency আইনে একটি তদন্ত শুরুর নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক । এইভাবে ইচ্ছেমতো যখন তখন তদন্ত শুরু করা যায় না। কোনও একটা অভিযোগের ১১ বছর পরে তদন্ত শুরু করা যায় না। এটা NIA আইন বিরোধী।"
দু'পক্ষের বক্তব্য শোনার পর বিচারপতি দেবাংশু বসাক কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা NIA-কে পুনরায় নোটিশ পাঠানোর নির্দেশ দেন এবং ছত্রধর মাহাতকে তদন্তের কাজে সহযোগিতার নির্দেশ দেন। দুই পক্ষকেই ৬ সপ্তাহের মধ্যে হলফনামা দিয়ে তাদের বক্তব্য জানাতে বলা হয়েছে। ছয় সপ্তাহ পরে ফের মামলাটির শুনানি করা হবে । তবে দুপক্ষেরই আইনানুগ পদক্ষেপ গ্রহণের স্বাধীনতা আছে বলে জানিয়েছেন বিচারপতি ।
প্রসঙ্গত, জঙ্গলমহলের নেতা ছত্রধর মাহাতর বিরুদ্ধে ২০০৯ সালে প্রথমে বাঁশতলাতে রাজধানী এক্সপ্রেসকে পণবন্দি করে হামলা চালানোর ঘটনায় সংশ্লিষ্ট থানায় অভিযোগ দায়ের হয়।পরে তার বিরুদ্ধে লালগড় থানাতে আরও একটি অভিযোগ দায়ের হয় ঝাড়গ্রামের CPI(M) নেতা দীপক মাহাত খুনের ঘটনায়। এই দু'টি মামলাতেই রাষ্ট্রদ্রোহিতা এবং রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে যুদ্ধের অভিযোগে NIA( National Investigation Agency)কে পুনরায় তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক ।


Comment As:

Comment (0)